Thursday, May 30, 2024
spot_img
Homeজীবনের খুঁটিনাটিস্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে দিয়েছে উজ্জ্বলা

স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে দিয়েছে উজ্জ্বলা

সাতকাহন২৪.কম ডেস্ক
অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় এলাকারই এক পার্লার থেকে বিউটিফিকেশনের টুকটাক কাজ শেখে খাদিজা ইসলাম লোপা। তবে ২০০৭ সালে বিয়ে হয়ে যাওয়ার পর সেই কাজ একদমই বন্ধ হয়ে যায়। বাবার বাড়ি ও শ্বশুড় বাড়ির মানুষ তেমন চাইতো না এই কাজটি আর করুক।

তবে তার ভেতরে ছিল তীব্র ইচ্ছা। সুযোগও হয়ে গেল। ২০২৩ সালে কক্সবাজারে বাংলাদেশ মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত প্রতিষ্ঠান ‘জয়িতা ফাউন্ডেশন’ ও বিউটি অ্যান্ড গ্রুমিং সেক্টরের পথ প্রদর্শক উজ্জ্বলার যৌথ উদ্যোগে ১০ দিন ব্যাপী একটি প্রশিক্ষণের সুযোগ পেয়ে যায় খাদিজা।

সেই কোর্স করে বর্তমানে ফ্রি ল্যান্সার মেকআপ আর্টিস্ট হিসেবে এখন কাজ করছে। নিজের স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে গেছে আরো এক ধাপ। খাদিজা বলেন, ‘মেকআপের বিষয়টি প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল। আমি অনেক আগে শিখেছিলাম। নতুন বিষয়গুলোর সঙ্গে একদমই পরিচিত ছিলাম না। খুব ইচ্ছা করতো শিখতে। তবে চকোরিয়ায় বিয়ে হওয়ায় সেখানে ভালো কোনো শেখার জায়গাও ছিল না। আর পরিবার থেকেও সহযোগিতা পেতাম না। আমার স্বপ্ন অধরাই রয়ে যায়। ‘

ক্যাপশন : প্রশিক্ষণ শেষে সার্টিফিকেট নিচ্ছেন খাদিজা ইসলাম লোপা। ছবি : সংগৃহীত
ক্যাপশন : প্রশিক্ষণ শেষে সার্টিফিকেট নিচ্ছেন খাদিজা ইসলাম লোপা। ছবি : সংগৃহীত

চকোরিয়া হস্তশিল্প সংগঠনের কার্যনির্বাহী সদস্য খাদিজা।বিউটিফিকেশনের পাশাপাশি ব্লকের কাজ, নকশি কাঁথার কাজ বেকিং করতে পছন্দ করেন তিনি। তবে এসব কাজ করতে গিয়েও অনেক বাঁধার মুখোমুখি হয়েছেন। তিনি বলেন, “কোর্স শেষ করে আসার পর এলাকার অনেকেই বলছে, এই বয়সে এগুলো শিখে কী করবে? এসব শেখার কী কোনো প্রয়োজন রয়েছে? বাচ্চা-কাচ্চা মানুষ করো। বাচ্চা-কাচ্চা নিয়ে থাকো, সংসার করো। তখন তাদের আমি বলি, আমার জীবনে কখন যে কোন বিষয়টির প্রয়োজন হবে, জীবনের অবলম্বন হয়ে দাঁড়াবে, তা কী আপনারা বলতে পারবেন?’ একটা সময় এসব কথা খুব আঘাত দিত। জীবনে অনেক পিছিয়ে পড়েছি। কিন্তু এখন আর এসব কথা পাত্তা দিই না। একজন গ্রামীণ নারী হিসেবে আমি স্বাবলম্বী হতে শুরু করেছি, এটা আমার জন্য অনেক বড় বিষয়।”

ক্যাপশন : প্রশিক্ষণের সময় খাদিজা ইসলাম লোপা। ছবি : সংগৃহীত
ক্যাপশন : প্রশিক্ষণের সময় খাদিজা ইসলাম লোপা। ছবি : সংগৃহীত

‘তবে আমার স্বামী আমাকে বিউটিফিকেশনের কাজ শিখতে খুব সহযোগিতা করেছেন। তাঁর সহযোগিতা না পেলে হয়তো এত দূর আশা হতো না। আর এ ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য সরকার ও উজ্জ্বলার এই যৌথ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। আমার মতো অনেক নারীই আজ এই প্রশিক্ষণ নিয়ে স্বাবলম্বী হতে পারছে, যারা হয়তো কখনো সাহসই পায়নি নিজের পায় দাঁড়াবার’, বলছিলেন খাদিজা।

খাদিজা স্বপ্ন দেখেন একটি প্রতিষ্ঠান গড়ার, যেখানে একসঙ্গে বিউটি স্যালন ও বুটিকস একসঙ্গে থাকবে। আর সেই স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে এগিয়ে যাচ্ছেন গ্রামীণ এই নারী।

বি : দ্র : বাংলাদেশের বিউটি অ্যান্ড গ্রুমিং ইন্ডাস্ট্রিতে উদ্যোক্তা তৈরিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে উজ্জ্বলা লিমিটেড। উজ্জ্বলায় প্রশিক্ষণ নিয়েছেন এবং সংগ্রাম করে সাফল্য অর্জন করেছেন, এমন কয়েকজন নারী ও পুরুষের সাক্ষাৎকার নিয়ে সাতকাহনের ধারাবাহিক পর্ব চলছে। এই পর্বটি ছিল ৭৩তম। উজ্জ্বলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন :

https://www.facebook.com/UjjwalaBD

https://www.instagram.com/UjjwalaBD/

ফোন : ০১৩২৪৭৩৪১৫৭

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments