https://www.fapjunk.com https://pornohit.net london escort london escorts buy instagram followers buy tiktok followers
Thursday, February 22, 2024
spot_img
Homeজীবনের খুঁটিনাটিবসন্তে ত্বকের যত্নে ৬ পরামর্শ

বসন্তে ত্বকের যত্নে ৬ পরামর্শ

ডা. তাওহীদা রহমান ইরিন

ঋতুরাজ বসন্ত সাজের ঋতু। প্রকৃতিতে ফুল ফোটে, বসন্তে ফাল্গুন ও ভালোবাসা দিবসের আমেজ থাকে। তবে ঋতু পরিবর্তন কিন্তু ত্বকের জন্য একটা বেশ চাপের বিষয়। ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে তাপমাত্রা, আর্দ্রতা পাল্টে যায়। এর সঙ্গে যোগ হয় ধুলোবালি, জীবাণু। সবকিছু মিলিয়ে ত্বক তার স্বাভাবিক কার্যক্ষমতা হারায়। হারিয়ে ফেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও। এতে ত্বক দুর্বল হয়ে পড়ে। দেখা দেয়, বিভিন্ন রোগ ও সমস্যা। এই জন্য এ সময় ত্বক ও চুলের যত্ন বাড়তি যত্ন জরুরি।

১. বসন্তে ত্বকের যত্নের ব্যাপারে প্রথম যে বিষয়টি আসে, তা হলো ক্লিনজিং। অর্থাৎ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা। ত্বকের ধরণ মূলত তৈলাক্ত, স্বাভাবিক, শুষ্ক, মিশ্র, সেনসিটিভ হয়ে থাকে। প্রথমে বলছি তৈলাক্ত ত্বকের কথা। কারণ, আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষের ত্বক তৈলাক্ত ও মিশ্র। যাদের ত্বক তৈলাক্ত তারা গরম কালে গ্লাইকোলিক অ্যাসিড যুক্ত বা সেলিসালিক অ্যাসিড যুক্ত ফেসওয়াশ ব্যবহার করে। শীতকালে ব্যবহার করে জোজোবা অয়েলযুক্ত ক্লিনজার। এ ক্ষেত্রে একজন ব্যক্তি এই সময় অর্থাৎ বসন্তে শীতের জন্য যে ফেসওয়াশ ব্যবহার করতেন সেটি সকালে ব্যবহার করবেন। রাতে ব্যবহার করবেন গ্লাইকোলিক অ্যাসিড যুক্ত বা সেলিসালিক অ্যাসিড যুক্ত ফেসওয়াশ। যাদের ত্বক শুষ্ক তারা সাধারণত সারা বছর গোট মিল্ক বা ক্যামোমাইলের নির্যাসযুক্ত ক্লিনজার ব্যবহার করবেন। যাদের ত্বক স্বাভাবিক তারা হয়তো শীতে ওটমিলযুক্ত ক্লিনজার ব্যবহার করে থাকেন, গরমে জোজোবা ওয়েল যুক্ত ক্লিনজার ব্যবহার করেন। এ ক্ষেত্রে সকালে শীতের স্কিনকেয়ার রুটিন এবং রাতে গ্রীষ্মকালের স্কিনকেয়ার রুটিন মেনে চলতে হবে।

২. প্রতিটি ঋতুতে ত্বকের ধরন অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হয়। সাধারণত গ্রীষ্মকালীন ক্লিনজারটি একটু লাইট ওয়েট, হালকা ক্রিম বা ফোমের লোশন হয়। শীতকালে ভারি ক্রিম ফর্মুলার হয়ে থাকে। শীত কিংবা গ্রীষ্ম সব ঋতুর জন্য ভালো উপাদান হলো হাইলোনিক অ্যাসিডযুক্ত সিরাম। সব ধরনের ত্বকের জন্য এটি ভালো। তবে শুষ্ক ও স্বাভাবিক ত্বকের জন্য এর সঙ্গে আরও কিছু ময়েশ্চারাইজার উপাদান মেশাতে হবে। যাদের ত্বক তৈলাক্ত তারা যদি গ্রীষ্মকালে হাইলোনিক অ্যাসিডযুক্ত সিরাম ব্যবহার করেন তারা শীতে ইয়াসিনামাইড, টি ট্রি অয়েলযুক্ত সিরাম ব্যবহার করবেন। যাদের স্কিন স্বাভাবিক তারা ভিটামিন ই, অ্যান্টিঅক্সিডেন্টযুক্ত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন। যাদের ত্বক অনেক শুষ্ক, তারা সিরামাইড, লিপিড ফ্যাটি অ্যাসিডযুক্ত ডি রিচ ক্রিমি ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন।

৪. সাধারণত আমাদের দেশে ঋতুভেদে সানস্ক্রিন তেমন একটা পরিবর্তিত হয় না। সানস্ক্রিনটি ব্রড এক্সপ্রেকট্রাম হয়, এসপিএফ ৫০ যুক্ত হয়, আর পি এ প্লাস যুক্ত হয়। সানক্রিন কেনার সময় খেয়াল করবেন এটি যেন অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসমৃদ্ধ হয়। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ইনফা রে থেকে ত্বককে রক্ষা করবে। ইনফা রে আসে নানা ধরনের ডিভাইস যেমন মোবাইল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, হেয়ার ড্রায়ার, চুলার আগুন ইত্যাদি থেকে। যারা ঘরের ভেতর কাজ করেন তারাও সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন। কারণ, হাই এনার্জি ভিজিবল লাইট সেগুলো থেকে ইনফা রে আসে। এটি আমাদের ত্বককে ড্যামেজ করে। বসন্তের প্রোগ্রামের আগে সাজার সময় প্রাইমারের আগে সানস্ক্রিনটা ব্যবহার করতে হবে। মেকআপ নিয়ে একটি পরামর্শ হলো- মেকআপ নিয়ে ঘুমাতে যাবেন না। অবশ্যই ডাবল ক্লিনজিং ও ডিপ ক্লিনজিং করবেন। মেকআপ করা ছাড়াও সপ্তাহে দুইবার অ্যাক্সফোলিয়েট করবেন। সপ্তাহে একদিন হাইড্রেটেড শিট মাস্ক ব্যবহার করবেন।

৫. বসন্তে ফুল ফোটে। ফুল ও রেণু থেকে দেখা দিতে পারে অ্যালার্জি। ইদানিং মাস্ক ব্যবহারের কারণে সমস্যা কমে আসছে। ঘরের দরজা জানালা খুলে রাখতে হবে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত। তারপর বন্ধ করে দিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন ফুলের রেণু ঘরে প্রবেশ না করে। অনেকেই ফুলের গয়না পরে। ফুল থেকে যদি অ্যালার্জি হয়, তাহলে কাপড়ের তৈরি ক্রাউন কিংবা গয়না ব্যবহার করবেন। যদি অ্যালার্জি হয়, তাহলে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টযুক্ত খাবার খাবেন। আর চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন।

৬. বসন্তে অনেকের চিকেন পক্স হয়ে থাকে। পানিযুক্ত দানা পুরো শরীরে ছড়িয়ে যায়। এটি ছোঁয়াচে। র‍্যাশগুলোতে ব্যাকটেরিয়ার ইনফেকশন হয়। অনেকে এগুলো হাত দিয়ে ফোটায়, চুলকায়। এটা থেকে দাগ হয়ে যেতে পারে। তাই র‍্যাশে হাত দেবেন না। সুথিং লোশন ব্যবহার করতে পারেন। ইনফেকশন হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ গ্রহণ করতে হবে।

লেখক : চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ, শিউর সেল মেডিক্যাল বিডি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments