Thursday, May 30, 2024
spot_img
Homeস্বাস্থ্যকাহনঘরোয়া টোটকাত্বকের উজ্জ্বলতা কেন হারায়? প্রতিরোধে করণীয়

ত্বকের উজ্জ্বলতা কেন হারায়? প্রতিরোধে করণীয়

– ডা. তাওহীদা রহমান ইরিন
সুন্দর, স্বাস্থ্যকর ত্বক সবার কাম্য। ত্বকের উজ্জ্বলতা হারানোর কারণ জানার আগে জেনে নেওয়া জরুরি উজ্জ্বল ত্বক বলতে কী বোঝায়? উজ্জ্বল ত্বক হলো সেই ত্বক, যা সুস্থ-স্বাভাবিক ও প্রাণবন্ত। অর্থাৎ ভারসাম্যপূর্ণ ত্বকই সুস্থ ত্বক।
কয়েকটি বিষয় রয়েছে, যেগুলো ত্বকের উজ্জ্বলতা হারানোর ক্ষেত্রে দায়ী। আসুন জানি বিষয়গুলো।
১. ত্বকে পানির পরিমাণ ঠিকঠাক না থাকলে, অর্থাৎ ত্বকের আর্দ্রতা বজায় না থাকলে ত্বক উজ্জ্বলতা হারায়, মলিন হয়ে পড়ে।
২. ত্বকের উজ্জ্বলতা হারানোর আরেকটি কারণ, কোষের অসুস্থতা বা ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া। সুস্থ কোষ ত্বকের জন্য সঠিক পরিমাণ মেলানিন তৈরি করে। আর কোষগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হলে হাইপার অ্যাকটিভ হয়ে বেশি মেলানিন তৈরি হয়। এটি ত্বকের উজ্জ্বলতার পথে বড় বাধা।
৩. উজ্জ্বলতা হারানোর আরেকটি কারণ হলো বয়স। বয়স বাড়তে থাকলে ইলাস্টিন ও কোলাজেন কমতে থাকে। এতে ত্বক দৃঢ়তা ও স্থিতিস্থাপকতা হারায়। কোষগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হতে থাকে। তখন বেশি মেলানিন তৈরি করে।
৪. এর সঙ্গে অনিদ্রা, অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন, অপুষ্টিকর খাবারের কারণেও ত্বক অনুজ্জ্বল হয়ে পড়ে।

প্রতিরোধ

১. নিজের ত্বককে চিনতে শিখুন। ত্বকের ধরন আর আবহাওয়া বুঝে যত্ন নিন। বাইরে বের হলে যেকোনো ঋতুতেই ত্বকের ওপরে ধুলোর আস্তরণ পড়ে। ত্বক পরিষ্কার করার জন্য প্রথমে অলিভ অয়েল, নারিকেল তেল বা আমন্ড অয়েল, গোলাপজল, নারিকেল দুধ দিয়ে মুখ ভালো করে ম্যাসাজ করে নিন। এরপর হালকা গরম পানিতে কাপড় ভিজিয়ে মুখটা মুছে ফেলুন। সবশেষে ভালো কোনো মাইলড ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
২. মুখ ধোয়ার পরে অবশ্যই ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে নেয়া জরুরি। ময়েশ্চারাইজার পুরো মুখে ভালো করে ম্যাসাজ করতে হবে।
৩. উজ্জ্বল ও সুন্দর ত্বকের জন্য বাইরে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করাটা অপরিহার্য।
৪. শরীরের সুস্থতার পাশাপাশি ত্বকের সুস্থতাও কিন্তু নির্ভর করে ব্যায়ামের ওপরে। ব্যায়াম মানসিক চাপ দূরে রাখে। নিয়মিত ব্যায়াম আমাদের শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে ও অক্সিজেন চলাচলে সহায়তা করে।
৫. ভালো ঘুম স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত জরুরি। প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের জন্য প্রতিদিন সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুম দরকার। একটি ভালো ঘুম দেহের হরমোন মাত্রা স্বাভাবিক রাখতে কাজ করে। শরীরকে সতেজ ও রোগমুক্ত রাখতে প্রয়োজন পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম।
৬. এ ছাড়া দিনে দুই থেকে তিন লিটার পানি পান করতেই হবে। সতেজ ত্বকের জন্য পানির বিকল্প নেই।নিয়ম করে প্রতিদিন আট গ্লাস পানি পান করুন।
৭. সুন্দর ত্বকের জন্য প্রয়োজনীয় খাবার, যেমন গাজর, ডিম, টমেটো, কমলা, গ্রিন টি, নারিকেল তেল, শাক, শসা, মৌসুমি ফল (পেয়ারা, আনারস), বাদাম, কুমড়ার বীজ, মাছ, টক দই, জিরা, আদা, হলুদ ইত্যাদি খাদ্যতালিকায় রাখুন। নিয়মিত এসব খাবার খেলে ত্বক থাকবে সজীব ও প্রাণবন্ত।
লেখক : চিফ ডার্মাটোলজিস্ট, শিওর সেল।

লেখক : চিফ ডার্মাটোলজিস্ট, শিওর সেল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments