https://www.fapjunk.com https://pornohit.net london escort london escorts buy instagram followers buy tiktok followers
Wednesday, February 28, 2024
spot_img
Homeজীবনের খুঁটিনাটিউজ্জ্বলায় কোর্স শেষে ফ্রিল্যান্সিং করেই মাসে আয় ৭০ হাজার

উজ্জ্বলায় কোর্স শেষে ফ্রিল্যান্সিং করেই মাসে আয় ৭০ হাজার

সাতকাহন২৪.কম ডেস্ক

ছোটবেলায় লেখাপড়ার প্রতি ভীষণ সিরিয়াস ছিলেন তিনি। সারাক্ষণ বইয়ের ভেতরেই মাথা গুঁজে থাকতেন। এইচএসসি পরীক্ষার আগে টাইফয়েড জ্বর হয়ে যাওয়ায় রেজাল্ট আশানুরূপ করতে পারেননি। এ মাইনাস পান। মনটা ভীষণ ভেঙে পড়ে। এরপর ভর্তি হন একটি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে। তখন থেকেই মনে হতে থাকে পড়াশোনার পাশাপাশিও জীবনে কিছু করা দরকার- যা করলে আয়ও হবে, মানসিক প্রশান্তিও মিলবে।

তখন ভাবলেন বিউটিফিকেশন বিষয়টি তার ভালো লাগে। এ বিষয়ে ফেসবুক, ইউটিউবে অনেক টিউটোরিয়াল দেখেন মাঝে মাঝেই। কিন্তু মনে হচ্ছিলো, ভালোভাবে কিছু শেখা দরকার। সেই ভাবনা থেকেই উজ্জ্বলায় আসা ইলমা মীরের।

বর্তমানে উজ্জ্বলা থেকে সম্পূর্ণ কোর্স শেষ করে মেকআপের ওপর ফ্রিল্যান্সিং করছেন তিনি। এটি করেই মাসে আয় ৩০ থেকে ৭০ হাজার টাকা। হয়েছেন স্বাবলম্বী, পাশাপাশি চালিয়ে যাচ্ছেন লেখাপড়া। বললেন, ‘ভালো একটি কোর্স করার জন্য অনেক জায়গা খুঁজেছি; অনেক দেখেছি। অনেক ঘাটাঘাটির পর ফেসবুক থেকে উজ্জ্বলার সন্ধান পাই। সেখানে দেখি উজ্জ্বলা সবকিছু শেখায়। এ টু জেড। সাধারণত অন্য জায়গায় গেলে একটা একটা কোর্স শেখাবে। সেই তুলনায় উজ্জ্বলা ভালো। আর এখানে হোস্টেলও রয়েছে। যেহেতু আমি নারায়গঞ্জে থাকতাম, তাই প্রতিদিন আসা-যাওয়া করে ক্লাস করা কঠিন ছিলো। উজ্জ্বলার হোস্টেলে থেকেই সব কোর্স করি। জায়গাটি নিরাপদও।’

২০১৯ সালে উজ্জ্বলায় ভর্তি হন ইলমা। প্রথমে পরিবার থেকে কাজটি করতে ভীষণভাবে বাধা দিচ্ছিলো। বিউটি আর্টিস্ট পেশায় ভালো পরিবারের মেয়েরা আসে না বা শিক্ষিত পরিবারের মেয়েরা কাজ করে না, এমন একটি ধারণা ছিল তাদের। তবে একপর্যায়ে ইলমা বোঝাতে সক্ষম হন বর্তমান প্রজন্মের জন্য এটি মোটেই কোনো ছোট পেশা নয়। এই পেশাতে অনেক বিখ্যাত বিউটি আর্টস্ট রয়েছেন এবং তারা দেশ-বিদেশে সুনাম অর্জন করেছেন। আর তাঁর মা-ও এই ক্ষেত্রে সাহায্য করেন তাকে। ইলমা জানান, সমাজকে দেখার নতুন এক দৃষ্টিভঙ্গি আমার ভেতর তৈরি করে দিয়েছিলো উজ্জ্বলা। এখান অনেক আপুরা শিখতে আসতেন। তাদের এক একজনের জীবনে এক এক রকম কষ্ট, লড়াই। উজ্জ্বলা কেবল মেকআপ শেখানোতেই সীমাবদ্ধ থাকে না, জীবনবোধও শেখায়। এই শিক্ষাটা নিয়েই আমি আমার পরিবারকে এই পেশার প্রতি ইতিবাচক দৃষ্টি তৈরি করতে সক্ষম হই। আর এখন যেহেতু টাকাও আয় করি, তাই বাসার সবই বেশ খুশি।

বর্তমানে Glow and gloss নামে ফেসবুকে একটি বিউটি পেইজ চালান তিনি। এই পেইজের মাধ্যমেই বুকিং নেন। তবে শুরুতেই এতো সাফল্য আসেনি। অপেক্ষা করতে হয়েছে, ধৈর্য ধরতে হয়েছে। বলেন, ‘কোর্স করে বের হওয়ার পর মনে হয়েছিলো আমি আমার ক্যারিয়ারে ঠিক পথেই এগোচ্ছি তো? একটু দ্বন্দ্বের মধ্যে পড়ে গিয়েছিলাম। এ সময় উজ্জ্বলা থেকে অনেক বড় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমাদের সার্টিফিকেট দেওয়া হয়। এই অনুষ্ঠানটি আমার সাহসকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছিলো। ফেসবুকে যখন পোস্ট দিই উজ্জ্বলা থেকে সার্টিফাইড, তখন অনেক ক্লাইন্ট আমার কাছে আসা শুরু করে। আর এখন তো কখনো কখনো এমনও হয় যে আমি ক্লাইন্ডদের শিডিউলও দিতে পারি না। এখন এটা ভেবে অবাক লাগে যে কেউ তার বিয়ের মতো বিশেষ দিনে আমার হাতে সাজবে বলে অপেক্ষা করে।’

আমার জীবনে এতোটুকু আসার পেছনে সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব উজ্জ্বলার। উজ্জ্বলা এতো সুন্দরভাবে সবকিছু শিখিয়েছে বলেই আজ বিউটি ইন্ডাসট্রিতে ভালোভাবে কাজ করতে পারছি। উজ্জ্বলার সহপ্রতিষ্ঠাতা আফরোজা পারভীন আপা একদিন ক্লাসে বলছিলেন, ‘আমি তোমাদের আমার সবটা শিখিয়ে দিলাম। নিয়মিত প্র্যাকটিস করে আরো দক্ষ হতে হবে তোমাদের।’ কাজ করতে গিয়ে আমিও সেটাই দেখছি, যত কাজ করছি, তত বেশি অন্যকে সুন্দরভাবে সাজাতে পারছি-জানান তিনি।

ভবিষ্যতে একটি পার্লার খোলার ইচ্ছা রয়েছে তাঁর। ‘আগামী বছরই এই কাজ শুরু করবো। উজ্জ্বলা যা শিখেছি, তা আরো ভালোভাবে প্রয়োগ করতে চাই। উজ্জ্বলায় আসা আমার জীবনের সেরা সিদ্ধান্ত ছিলো’,- এমনটাই বলেন তিনি।

বি : দ্র : বাংলাদেশের বিউটি অ্যান্ড গ্রুমিং ইন্ডাস্ট্রিতে উদ্যোক্তা তৈরিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে উজ্জ্বলা লিমিটেড। উজ্জ্বলায় প্রশিক্ষণ নিয়েছেন এবং সংগ্রাম করে সাফল্য অর্জন করেছেন, এমন কয়েকজন নারী ও পুরুষের সাক্ষাৎকার নিয়ে সাতকাহনের ধারাবাহিক পর্ব চলছে। এই পর্বটি ছিলো ৫৩তম। উজ্জ্বলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন :

https://www.facebook.com/UjjwalaBD

https://www.instagram.com/UjjwalaBD/

ফোন : ০১৩২৪৭৩৪১৫৭

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments